বৃহস্পতিবার ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

‘”ভাত দে, নইলে লকডাউন তুলে লে’”দাবিতে রাজশাহীতে ব্যবসায়ী কর্মচারীদের থালা বাটি নিয়ে বিক্ষোভ

আপডেটঃ ২:৩০ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৮, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

হাই খেতে দে না হয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের খুলতে দে না হয় লকডাউন তুলে লে।যেকোনো একট আর দাবি মেনে নেয়াযর দাবিতে, রাজশাহী নগরীর আরডিএ মার্কেটের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন ব্যবসায়ী-কর্মচারীরা ৮জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে কয়েকশ ব্যবসায়ী-কর্মচারী তাদের‌ঐক্য পরিষদ যৌথ উদ্যোগে,থালা হাতে করে‘ভাত দে ভাত দে,নইলে লকডাউন তুলে লে’ নয়তো গদিছেড়ে দে স্লোগানে দোকান খোলার দাবিতে বিক্ষোভ ও অবস্থান করছেন মার্কেটের সামনে।তাদের দাবি লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকেই তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ।দোকান মালিক ও কর্মচারীসহ প্রায় লক্ষাধিক মানুষের সংসার চলে এই ব্যবসা থেকে।করোনার শুরু থেকেই তাদের দোকানপাট বন্ধ।তারা অর্ধাহারে অনাহারে দিন যাপন করছেন।

ব্যবসায়ীরা বলছেন রাজশাহী শহরে প্রায় কয়েক হাজার ব্যবসায়ী এখানে ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করে।এরমধ্যে কাপড় ব্যবসায়ী,পাদুকা ব্যবসায়, কসমেটিক বা প্রসাধনী ব্যবসায়ী কম্পিউটার ব্যবসায়ী,স্বর্ণ ব্যবসায়ী,লাইব্রেরিসহ বহু ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান রয়েছে।এর সাথে জড়িত রয়েছে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ।যাদের আয় বন্ধ।এছাড়া তাদেরকে প্রতিমাসে গুনতে হচ্ছে দোকান ভাড়া, বৈদ্যুতিক বিল,পাহারাদার দের বেতন।ব্যবসায়ী নেতারা বলছেন,এই অবস্থা চলতে দেওয়া যায় না।তারা বাড়িতে তাদের পরিবারের সদস্যদেরকে চোখের সামনে অনাহারে মরতে দেখতে পারে না।তাই তারা বাধ্য হয়ে থালা বাটি হাতে রাস্তায় নেমেছেন।হয় তাদের দোকান খুলে দিতে হবে, না হয় তাদের খেতে দিতে হবে।আর কয়েকদিন পর কোরবানির ঈদ,এ কয়েক দিন দোকান খুললো তারা কিছুটা ব্যবসা করতে পারতেন।কিন্তু সরকার লকডাউনের অজুহাতে তাদের ব্যবসা করে বন্ধ করে রেখেছে।

অনতিবিলম্বে তাদের ব্যবস্থা করতেন গুলি খুলে না দেওয়া হলে‌,থালা বাটি হাতে,তাদের পরিবার-পরিজনদের সাথে নিয়ে রাস্তায় বসে লাগাতার অবস্থান করবেন বলে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে কঠোর হুঁশিয়ারি ও হুমকি দেন।তাদের একটাই দাবি, হয় খেতে দে, না হয় দোকান খুলতে দে,আর না হয় লকডাউন তুলে দেন।এ সময় নেতৃত্ব দেন অশোক কুমার ঘোষ,সভাপতি বস্ত্র মালিক সমিতি বিএনপি নেতা,শামীম আহমেদ সাধারণ সম্পাদক বস্ত্র মালিক সমিতি,আলহাজ্ব হারুনুর রশিদ, সভাপতি ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ রাজশাহী,আলহাজ্ব ফরিদ মাহমুদ হাসান,ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ রাজশাহী,হাজী তাপস,সভাপতি কোকারিজ মালিক সমিতি আর ডিএ মার্কেট,সজল, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ রাজশাহী,রিপন সভাপতি পাদুকা সমিতি আর ডি এ মার্কেট সহ আরও অনেকে।ব্যবসায়ী মালিক কর্মচারীদের জন্য প্রণোদনার টাকা আসলেও তা দেওয়া হচ্ছে না বলেও দাবি করেন।

IPCS News/রির্পোট।আবুল কালাম আজাদ, রাজশাহী