সোমবার ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে চাই : প্রধানমন্ত্রী

আপডেটঃ ৪:৩১ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ১৮, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনায় একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে চাই।যেখানে থাকবে না কোনো অবিচার, থাকবে না কোনো অন্যায়।দেশটা আমাদের, আমরা দেশটাকে একটি অসাম্প্রদায়িক চেতনায় গড়ে তুলতে চাই।উন্নত, সমৃদ্ধ, ও সোনার বাংলাদেশ গড়তে চাই।আজ ১৮ অক্টোবর সোমবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শেখ রাসেল দিবস ২০২১-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।শেখ হাসিনা বলেন, আমরা চাই এ দেশের প্রত্যেকটি শিশুর জীবন অর্থবহ হবে।অকালে ঝড়ে যাবে এটা চাই না।সোনার বাংলাতে যাতে এ ধরনের আর কোনো ঘটনা না ঘটে।আমাদের দেশের শিশুরা একটা আত্মবিশ্বাস নিয়ে বেড়ে উঠবে।প্রতিটা শিশুর প্রতিভা বিকশিত হোক।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঘাতকের বুলেটে যেন আর কোনো শিশুকে জীবন দিতে না হয়।আমি সমগ্র জাতির কাছে এ আহ্বানই জানাবো, আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যত।তাদের নিরাপত্তা দেয়া, ভালোবাসা দেওয়া, তাদের সুন্দরভাবে গড়ে তোলা এবং তাদের জীবনকে স্বার্থক করা, অর্থবহ করা যেন সবার আকাঙ্ক্ষা হয়।

শিশুদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, তোমরা মনোযোগ দিয়ে পড়াশোনা করবে।শিক্ষাটাই সবচেয়ে বড় সম্পদ।কারণ, শিক্ষা এমন একটা সম্পদ যেটা কখন কেউ কেড়ে নিতে পারবে না।অন্য যেকোনো সম্পদ চুরি হতে পারে, হারিয়ে যেতে পারে, কিন্তু শিক্ষা এমন একটা সম্পদ যেটা কখনো হারাবে না।আমি জানি করোনার সময় শিশুরা স্কুলে যেতে পারেনি।

লেখাপড়া বাধাগ্রস্থ হয়েছে।এখন করোনা নিয়ন্ত্রণে তাই আমরা স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি খুলে দিয়েছি।‘আওয়ামী লীগ‘ সরকারে গঠনের পর থেকে দেশবাসীর কাছে সঠিক ইতিহাস তুলে ধরার পাশাপাশি দেশের মানুষকে একটা উন্নত জীবন দেয়ার সঙ্গে শিশুদের নিরাপত্তা প্রদানে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ১৯৭৪ সালেই শিশু নিরাপত্তার জন্য আইন প্রণয়ন করে যান।কিন্তু দুর্ভাগ্য ঘাতকের হাতে তাঁরই সন্তানদেরকে মৃত্যুবরণ করতে হল।তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম বক্তৃতা করেন।

IPCS News : Dhaka.