মঙ্গলবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

আজ পরীক্ষা-মূলকভাবে মেট্রোরেলের উদ্বোধনঃ

আপডেটঃ ১২:৪৫ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২৯, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

আজ ২৯আগস্ট রোববার থেকে পরীক্ষা-মূলক ভাবে শুরু হচ্ছে মেট্রোরেল চলাচল।যাত্রীবিহীন এই মেট্রোরেল পরীক্ষা-মূলক ভাবে রাজধানীর উত্তরা থেকে পল্লবী পর্যন্ত চারটি স্টেশনের মধ্যে চলবে।আজ সকাল ১০টায় সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উত্তরায় মেট্রোরেলের জন্য নির্মিত ডিপোতে ট্রেন চলাচল উদ্‌বোধন করেন।মেট্রোরেলের প্রজেক্ট ম্যানেজার এ বি এম আরিফুর রহমান বলেন, স্বপ্নের মেট্রোরেলের সঙ্গে আমরা যাঁরা সম্পৃক্ত, তাঁরা সবাই আজ উচ্ছ্বাসিত।কাজের শুরু থেকেই যাঁরা আছেন, তাঁরা সবাই নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছেন।তিনি আরও বলেন, উন্নয়নের মাইলফলক হিসেবে বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই মেট্রোরেল প্রকল্পে আমরা কাজ করতে পেরে নিজেদের গর্বিত কর্মী বলে মনে করছি।এরপর শুক্রবারের মতো আজও ৬টি বগি নিয়ে মেট্রোরেল ভায়াডাক্টে (মেট্রো লাইন) চলাচল করবে।

দিয়াবাড়ি ডিপো থেকে মিরপুরের পল্লবী হয়ে আবার ডিপোয় ফিরে যাবে ট্রেন।বহুল প্রতীক্ষিত মেট্রোরেল বাস্তবে রূপ পেতে যাওয়ায় খুশি রাজধানীবাসী।শুক্রবার সকালে ভায়াডাক্টে মেট্রোরেল দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ওই এলাকার মানুষ।বাসাবাড়ি থেকে, কেউ বাসার ছাদ থেকে ট্রেন চলার ছবি তুলেছে, কেউ ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করেছেন।

বর্তমান সরকারের গৃহীত এ পদক্ষেপ আলোর মুখ দেখায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।এর আগে ২১ এপ্রিল এমআরটি-৬ এর প্রথম ট্রেনসেট ঢাকায় পৌঁছায়।প্রথম সেটে ৬টি কোচ ও শিফটিং জিক নিয়ে দুটি বার্জ ঢাকায় পৌঁছায়।পরে ধাপে ধাপে অন্য ট্রেনসেট (বগি) ঢাকায় এসেছে।আরও আনার প্রক্রিয়া চলমান।দেশের প্রথম এই মেট্রোরেলে থাকবে ২৪টি ট্রেনসেট।প্রতিটি ট্রেনসেটের ৬টি করে ১৪৪টি কোচ থাকবে।

প্রতিটি ট্রেনসেটে যাত্রী পরিবহণ ক্ষমতা ২ হাজার ৩০৮ জন।ঘণ্টায় মেট্রোরেল উভয়পাশে যাত্রীপরিবহণ করবে প্রায় ৬০ হাজার।প্রকল্পসংশ্লিষ্টরা জানান, এমআরটি-৬ সার্বিক কাজের অগ্রগতি হয়েছে ৬১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।প্রথম পর্যায়ের নির্মাণের জন্য নির্ধারিত উত্তরা তৃতীয় পর্ব হতে আগারগাঁও অংশের পূর্ত কাজ শেষ হয়েছে প্রায় শতভাগ।

দ্বিতীয় পর্যায়ের নির্মাণের জন্য নির্ধারিত আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি হয়েছে প্রায় ৬০শতাংশ।ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল সিস্টেম এবং রোলিং স্টক ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ কাজের সমন্বিত অগ্রগতি হয়েছে অর্ধেকের বেশি।এ প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হচ্ছে প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকা।

আরিফুর রহমান বলেন, আমরা আশা করব, মেট্রোরেলের এই প্রকল্পের মাধ্যমে যানজট নিরসন হবে এবং ঢাকাবাসী স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলবে।পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেনটিতে আজ জাপানের এক নাগরিক চালক হিসেবে থাকবেন।এই উদ্বোধন অনুষ্ঠান ঘিরে মেট্রোরেল প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে এক উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে।

IPCS News Report : Dhaka: