শনিবার ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের জন্য ফনির ক্ষয়ক্ষতি কমানো গেছে: হানিফ

আপডেটঃ ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ | মে ০৫, ২০১৯

 অনলাইন সংস্করণ

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের জন্য আগাম তথ্য পেয়েছিলাম বলে আমাদের সরকার ও দলীয়ভাবে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলা সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলাম। যার ফলে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

শনিবার দুপুরে ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ঘুর্ণিঝড় ফনি নিয়ে দলীয় মনিটরিং সেলের কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ নিয়ে সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন তিনি।হানিফ বলেন, আমরা দেশবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই। গত ১০ বছরে তার রাষ্ট্র শাসনামলে সব দিকে দেশের উন্নয়ন হয়েছে।

বিশেষ করে উন্নয়নের একটি বড় অংশ হচ্ছে মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ। বঙ্গবন্ধু স্যাটালাইট উৎক্ষেপণের মাধ্যমে গভীর সমুদ্রের ২ হাজার কিলোমিটারে শুরু হওয়া ঘূর্ণিঝড়ের খবর আবহাওয়া অধিদফতরের মাধ্যমে সংগ্রহ করছি।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কারণে আগাম তথ্য পেয়েছিলাম বিধায় আমাদের সরকার ও দলীয়ভাবে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলা সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলাম। যার ফলে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করেন হানিফ।

প্রধানমন্ত্রী বিদেশে বসে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছেন। এই ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় সরকারের সব প্রতিষ্ঠান সমন্বয় করে কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

ঘুর্ণিঝড় ফনি মোকাবেলায় সরকার কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, আমি গতকালকেও বলেছিলাম, যারা এই ধরনের কথাবার্তা বলছেন, তাদেরকে নোংরা ভাষায় কিছু বলা যায় না।

‘তাই অনেকেই তাদের এই বক্তব্যকে পাগলের প্রলাপের সঙ্গে তুলনা করছেন। বিএনপি আসলে রাজনীতি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে, ছিটকে পড়েছে। বিএনপি আজকে আভ্যন্তরীণ কোন্দলে জর্জরিত।’

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, বিএনপি নিজেদের সমস্যা ধামাচাপা দেয়ার জন্যই সরকারের কর্মকাণ্ড নিয়ে বিভিন্ন মিথ্যাচার করে। তারা নানা কথাবার্তা বলে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে নিজেদের ব্যর্থতা চাপা দেয়ার চেষ্টা করছে।

তিনি বলেন, আমরা বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার তথ্য উপাত্ত নিচ্ছি। ঘূর্ণিঝড় ফনি শেষ হলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় আমাদের টিম যাবে এবং সরকার ও দলের পক্ষ থেকে তাদের পুনর্বাসনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, একেএম এনামুল হক শামীম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত নন্দী রায়, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যরিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য আখতারুজ্জামান,
গোলাম রাব্বানী চিনু , এসএম কামাল হোসেন সহ আরো অনেকে।

Ipcs News/ রির্পোট