বুধবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

গণপরিবহণ চলবে ১১ আগস্ট থেকে

আপডেটঃ ৪:০৮ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৩, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

সরকার করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে চলমান কঠোর লকডাউন আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।১১আগস্ট থেকে চলবে অল্প সংখ্যক গণপরিবহণ।মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সচিবালয়ে সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক এ তথ্য জানিয়েছেন।বেলা সোয়া ১১টায় মন্ত্রিপরিষদের সভাকক্ষে সভাটি শুরু হয়।সভায় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক,মন্ত্রিপরিষদ সচিব আনোয়ারুল ইসলাম।এছাড়াও ভার্চুয়ালি মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা যুক্ত ছিলেন।মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী বলেন,স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আগামী ১সপ্তাহে ১কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেটেড করবে।ওয়ার্ড-ইউনিয়নে ৫ থেকে ৭টা কেন্দ্র করে মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।ভ্যাকসিন নিতে মানুষকে দৌড়াতে হবে না,আমাদের লোকজনই তাদের কাছে পৌঁছে যাবে।

সরকার গত ২৩জুলাই সকাল ৬টা থেকে ১৪দিনের কঠোর লকডাউন দেয়।লকডাউনের মেয়াদ আগামী ৫আগস্ট রাত ১২টায় শেষ হবে।সরকারি-বেসরকারি অফিস সহ সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ আছে বিধিনিষেধে।খাদ্য উৎপাদন-প্রক্রিয়াকরণ,চামড়া পরিবহন-সংরক্ষণ ও ওষুধ খাত ছাড়া বন্ধ রয়েছে সব ধরনের শিল্প-কারখানা।তবে ১আগস্ট থেকে খুলছে রপ্তানিমুখী শিল্প-কারখানা।বন্ধ রয়েছে দোকান ও শপিংমল।জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের বাইরে বের হওয়াও নিষেধ।মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী ১সপ্তাহে ১কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেটেড করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।ওয়ার্ড-ইউনিয়নে ৫ থেকে ৭টা কেন্দ্র করে ১কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

মানুষকে ভ্যাকসিন নিতে দৌড়াতে হবে না, আমাদের লোকজনই তাদের কাছে পৌঁছে যাবে।তিনি আরও বলেন,একযোগে ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।বয়স্কদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে,কারণ বৃদ্ধ লোকদের মৃতুঝুঁকি বেশি বলে মনে হয়েছে।্সেইসঙ্গে শ্রমিক,বাসের হেলপারসহ সবাইকে ভ্যাকসিন নিতে আহ্বান জানাচ্ছি।ভ্যাকসিন ছাড়া কেউ কর্মস্থলে আসতে পারবেন না।সঙ্গে থাকতে হবে ভ্যাকসিনের সার্টিফিকেট।ভ্যাকসিন দিলেই ওয়েবসাইটে চলে যাবে ,সেগুলো চেক করা হবে।ভ্যাকসিন নিয়েছে কি না যাচাই করতে পারব।৭,৮,৯ তারিখ সুযোগ রাখলাম।১০ তারিখ পর্যন্ত সুযোগ দিচ্ছি যাতে তারা ভ্যাকসিন নিয়ে ব্যবসা কেন্দ্র খুলতে পারে।

IPCS News/রির্পোট।dhaka