শনিবার ২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী সাদিয়া আক্তার টুনিকে(৯)ধর্ষণ ও হত্যার রহস্য উদঘাটন।

আপডেটঃ ১:০১ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৪, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী সাদিয়া আক্তার টুনিকে(৯)।উপজেলার লোহাজুরী ইউনিয়নের দক্ষিণ লোহাজুরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে পাটক্ষেত থেকে হাত-পা বাঁধা ও গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।এ হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত সন্দেহভাজন আসামী নজরুল ইসলাম(৩৫) মঙ্গলবার বিকালে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাদ্দাম হোসেনের কাছে ১৬৪ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।কটিয়াদী উপজেলার দক্ষিণ লোহাজুরী গ্রামের ছমর উদ্দিনের ছেলে নজরুল ইসলাম।জবানবন্দিতে নজরুল জানিয়েছে,ক্ষেত থেকে বাড়ি ফেরার সময় বৃষ্টিকে দেখে জড়িয়ে ধরে সে।বৃষ্টি মা-বাবার কাছে এ কথা বলে দেবে বলে জানালে নজরুল তার মুখ চেপে নিকটবর্তী পাটক্ষেতের ভেতরে নিয়ে যায়।সেখানে শিশুটিকে ধর্ষণ করে মুখ ও গলা সজোরে চেপে ধরে তাকে হত্যা করে।এরপর বাড়িতে ফিরে পরে গা ঢাকা দেয়।বিভিন্ন জায়গায় পলাতক থাকার পর সর্বশেষ ঢাকার আশুলিয়ায় অবস্থান করে সে।কিশোরগঞ্জ পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মো. শাহাদাত হোসেন জানান,গত ২ জুলাই স্থানীয় পাটক্ষেতে গলায় ওড়না প্যাচানো বৃষ্টির লাশ পাওয়া যায়।এ ঘটনায় তার বাবা চুন্নু মিয়া বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামির বিরুদ্ধে কটিয়াদী থানায় মামলা দায়ের করেন।এরপর পিবিআইয়ের কিশোরগঞ্জ জেলার ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ছায়াতদন্ত শুরু করে। মামলাটি পিবিআইয়ের সিডিউলভুক্ত হওয়ায় পিবিআই রোববার এর তদন্তভার পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ সাখরুল হক খানকে দেয়।

  IPCS News/রির্পোট।