সোমবার ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

রাজশাহীতে করোনায় একমাসে ৩৫২ জনের মৃত্যু

আপডেটঃ ৩:০৪ অপরাহ্ণ | জুন ৩০, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে এক মাসে রেকর্ড ৩৫২জনের মৃত্যু হয়েছে।১জুন থেকে ৩০জুন পর্যন্ত ত্রিশদিনে তাদের মৃত্যু হয়।এর মধ্যে সবচেয়ে বেশী মারা গেছে রাজশাহী জেলার।হাসপাতালের তথ্যমতে, এক মাসে এ হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে মারা যাওয়া ৩৫২জনের মধ্যে রাজশাহীর ১৬৭জন ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১১৫জন।এছাড়াও মারা যাওয়া ৩৫২জনের মধ্যে ১৭১জনের করোনাভাইরাস পজেটিভ ছিল।বাকি ১৮১জন মারা যান করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায়।চলতি মাসে সবচেয়ে বেশি মারা গেছে ২৯জুন ২৫জন।সবচেয়ে কম মারা গেছে ১২জুন চারজন।রামেক হাসপাতালে মৃত্যুর সব রেকর্ড ভেঙ্গেছে এই জুন মাসে।এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ২৯জন, ফেব্রুয়ারিতে ১৭মার্চে ৩১এপ্রিলে ৭৯ ও মে মাসে ১২৪জনের মৃত্যু হয়েছে।আর গত বছরে সর্বোচ্চ মৃত্যু ছিল আগস্ট মাসে ২৬জন।

এদিকে, রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মাসের শেষ দিনে ১২জনের মৃত্যু হয়েছে।মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে বুধবার সকাল ৬টার মধ্যে মারা যাওয়াদের মধ্যে পাঁচজনের করোনা পজেটিভ ছিল।বাকিরা মারা যান উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায়।হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, নতুন মারা যাওয়াদের আটজনই রাজশাহীর।বাকিদের মধ্যে চাঁপাইনবাগঞ্জের দুইজন, নাটোরের একজন,নওগাঁর একজন।এদের মধ্যে সাতজন পুরুষ ও পাঁচজন নারী।মারা যাওয়াদের মধ্যে চারজনের বয়স ৬১বছরের উপরে।বাকিদের মধ্যে ৫১থেকে ৬০বছরের মধ্যে পাঁচজন, ৪১থেকে ৫০বছর বয়সের মধ্যে দুইজন, ৩১থেকে ৪০বছর বয়সের একজন।এদের মধ্যে পাঁচজন মারা যান আইসিইউতে।

শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৬৩জন।এর মধ্যে রাজশাহীর ৪৩জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের আটজন, নাটোরের চারজন, নওগাঁর ছয়জন ও পাবনার দুইজন।একই সময় সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৫০জন।বুধবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ৪০৫বেডের বিপরীতে চিকিৎসাধীন আছেন ৪৬০জন।অতিরিক্ত রোগিদের মেঝে ও বারান্দায় রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।তিনি জানান, চিকিৎসাধীন রোগিদের মধ্যে রাজশাহীর ৩০০ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৫৬জন, নাটোরের ৩৫জন, নওগাঁর ৪০জন, পাবনার ২২জন, কুষ্টিয়ার চারজন, চুয়াডাঙ্গার একজন, দিনাজপুরের একজন ও মেহেরপুরের একজন।আইউসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন ২০জন।

IPCS News/রির্পোটঃ আবুল কালাম আজাদ :রাজশাহী।