সোমবার ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

রাজশাহীতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ

আপডেটঃ ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ | জুন ০৩, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহীতে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।বুধবার (২জুন) বিকালে এ বিষয়ে ১০টি  প্রজ্ঞাপন জারি করেন রাজশাহী জেলা প্রশাসন।রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিলের  সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ আদেশ জারি করা হয়।সংবাদ  বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করােনা ভাইরাসজনিত রােগ ( কোভিড- ১৯ ) সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী বৃহস্পতিবার (০৩ জুন)  সকাল ৭ টা হতে ,পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত রাজশাহী জেলায় নিম্নোক্তভাবে বিধি নিষেধ আরােপ করা হলাে ।বিধিনিষেধগুলো হলো:

১) সন্ধ্যা ৭ টা থেকে সকাল ৮ টা পর্যন্ত অতি জরুরি প্রয়ােজন ব্যতীত ( ঔষধ ও নিত্য প্রয়ােজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয় , চিকিৎসা সেবা , মৃতদেহ দাফন / সৎকার ইত্যাদি ) কোন ভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবেনা।
২) খাবারের দোকান ও হােটেল , রেস্তোরাঁয় কেবল খাদ্য বিক্রয় / সরবরাহ ( Takeway Online ) করা যাবে ।কোন অবস্থাতেই হােটেল – রেস্তোরাঁয় বসে খাবার গ্রহণ করা যাবেনা।
৩) শপিংমলসহ অন্যান্য দোকানসমূহ বন্ধ থাকবে।তবে দোকানসমূহে পাইকারি ও খুচরা পণ্য  অনলাইনের এর মাধ্যমে ক্রয় – বিক্রয় করতে পারবে ।সেক্ষেত্রে অবশ্যই সর্বাবস্থায় কর্মচারিদের মধ্যে আবশ্যিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং কোনাে ক্রেতা স্বশরীরে যেতে পারবে না।

৪) কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়ােজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৮ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয় – বিক্রয় করা যাবে।বাজার কর্তৃপক্ষ স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করবে।
৫)মাস্ক ব্যবহার শতভাগ নিশ্চিত করতে হবে।প্রয়ােজনে মােবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৬) কোভিড , ১৯ প্রতিরােধে সিটিকর্পোরেশন , জেলা সদর , পৌরসভা এলাকাসমূহে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য বিধি প্রতিপালনের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় এবং সংশ্লিষ্ট সিটি কর্পোরেশন / পৌরসভা মাইকিংসহ ব্যাপক প্রচার – প্রচারণার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে ।

৭) আইনশৃঙ্খলা ও জরুরী পরিসেবা যেমন- কৃষি উপকরণ ( সার , বীজ , কীটনাশক , কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি ) , খাদ্য – শস্য ও খাদ্য – দ্রব্য পরিবহন , ত্রাণ বিতরণ , স্বাস্থ্যসেবা , কোভিড -১৯ টাকা প্রদান , বিদ্যুৎ , পানি , জ্বালানি , ফায়ার সার্ভিস , স্থলবন্দরসমূহ কার্যক্রম , টেলিফোন ও ইন্টারনেট ( সরকারি / বেসরকারি ) , গণমাধ্যম ( প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ) , বেসরকাররি নিরাপত্তা ব্যবস্থা , ডাকসেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ , তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বহির্ভূত থাকবে।

৬) কোভিড , ১৯ প্রতিরােধে সিটিকর্পোরেশন , জেলা সদর , পৌরসভা এলাকাসমূহে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য বিধি প্রতিপালনের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় এবং সংশ্লিষ্ট সিটি কর্পোরেশন / পৌরসভা মাইকিংসহ ব্যাপক প্রচার – প্রচারণার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে ।
৭) আইনশৃঙ্খলা ও জরুরী পরিসেবা যেমন- কৃষি উপকরণ ( সার , বীজ , কীটনাশক , কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি ) , খাদ্য – শস্য ও খাদ্য – দ্রব্য পরিবহন , ত্রাণ বিতরণ , স্বাস্থ্যসেবা , কোভিড -১৯ টাকা প্রদান , বিদ্যুৎ , পানি , জ্বালানি , ফায়ার সার্ভিস , স্থলবন্দরসমূহ কার্যক্রম , টেলিফোন ও ইন্টারনেট ( সরকারি / বেসরকারি ) , গণমাধ্যম ( প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ) , বেসরকাররি নিরাপত্তা ব্যবস্থা , ডাকসেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ , তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বহির্ভূত থাকবে।

৮) জরুরি প্রয়ােজন ব্যতীত ( ঔষধ ও নিত্যপ্রয়ােজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয় , চিকিৎসাসেবা , মৃতদেহ দাফন / সৎকার ইত্যাদি ) কোন ভাবেই বাড়ির বার বের হওয়া যাবেনা ।তবে টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে।
৯) স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে জুম্মার নামাজসহ প্রতি ওয়াক্ত নামাজে সবাের্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করতে পারবে।অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়েও সমসংখ্যক ব্যক্তি উপাসনা করতে পারবে ।
১০) আমের আড়ত/বাজার পৃথক জায়গায় ছড়িয়ে আড়তদারদের মাধ্যমে বিক্রয় করা যাবে ।তবে বাগান থেকে আম ট্রাকে করে প্রেরণ করা যাবে।এছাড়া কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে আম পরিবহন চালু থাকবে।উপজেলা প্রশাসন এ বিষয়ে প্রয়ােজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করবেন।

IPCS News/রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ