সোমবার ১৩ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

দেশকে জঙ্গিবাদ ও মাদকমুক্ত রাখার আহবান আইজিপির

আপডেটঃ ১১:৩২ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ২৮, ২০১৯

নিউজ ডেস্ক:


ঢাকা, ২৭ মার্চ ২০১৯ খ্রি. বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, বিপিএম (বার) বাংলাদেশকে সঠিকভাবে গড়ে তুলতে হলে জঙ্গিবাদ ও মাদক থেকে মুক্ত থাকার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।
আইজিপি বুধবার বিকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্ বাংলাদেশ পুলিশ অডিটরিয়ামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস এবং মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০১৯ উপলক্ষে বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর আয়োজিত চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতা এবং আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ আহবান জানান। বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মোঃ শফিকুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল আলোচক ছিলেন কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। বাংলাদেশের প্রথম আইজিপি ও স্বরাষ্ট্র সচিব আবদুল খালেকের সহধর্মিনী মিসেস সেলিনা খালেক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আইজিপি বলেন, তোমাদেরকে জঙ্গিবাদ ও মাদক থেকে মুক্ত থাকতে হবে। অভিভাকবদেরকে তিনি বলেন, আপনাদের সন্তানকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। তাদেরকে জঙ্গিবাদ ও মাদকমুক্ত থাকার শিক্ষা দিতে হবে।

আইজিপি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের প্রেরণা জুগিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর এ প্রেরণা শুধু পুলিশ নয়, সমাজের সর্বস্তরের মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পড়েছিল। তখন প্রতিটি মানুষ একই সূত্রে গাঁথা হয়ে গিয়েছিল। বঙ্গবন্ধু আমাদের মাঝে স্বাধীনতার বীজ বপন করেছেন। তিনি আমাদেরকে স্বাধীন বাংলাদেশ উপহার দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু প্রগাঢ়ভাবে বাঙালি জাতিকে ভালবাসতেন। তাদেরকে নিয়ে চিন্তা করতেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুই বাংলাদেশ, বাংলাদেশই বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধুকে না জানলে বাংলাদেশকে জানা অসমাপ্ত থেকে যাবে। তিনি বঙ্গবন্ধুকে জানতে ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ এবং ‘কারাগারের রোজনামচা’ বই দুটি পড়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতি আহবান জানান।
পুলিশ প্রধান বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ, পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের ইতিহাস ও ঐতিহ্য সংরক্ষণ এবং বাংলাদেশকে তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।
সেলিনা হোসেন বলেন, মানুষকে ভালবাসার এক অসাধারণ ক্ষমতা ছিল বঙ্গবন্ধুর। তিনি ছোটবেলা থেকেই নিজের চেতনায় মানুষকে ভালবেসেছেন, মানুষকে নিজের বুকে ধারণ করেছেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ সেদিন রেসকোর্স ময়দানে উপস্থিত জনতার মাঝেই নয়, ছড়িয়ে পড়েছিল সারাদেশে।

সেলিনা খালেক বলেন, বর্তমানে পুলিশের সক্ষমতা অনেক বেড়েছে, উন্নতি হয়েছে। ভবিষ্যতে আরও উন্নতি হবে। তিনি তার প্রয়াত স্বামী বাংলাদেশের প্রথম আইজিপি ও স্বরাষ্ট্র সচিব আবদুল খালেককে এ বছর স্বাধীনতা পদক প্রদান করায় সরকার এবং পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান।
অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন এআইজি (ডিএন্ডপিএস) ও বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের পরিচালক আবিদা সুলতানা, রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্ স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্রী সানজিদা হক ন্সিগ্ধা এবং ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্র আব্দুল আহাদ।পরে আইজিপি বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত আইজিপিগণ, ঢাকাস্থ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের প্রধানগণ, রাজাধানীর বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থী, শিক্ষক-অভিভাবক, আমন্ত্রিত অতিথি এবং ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

Ipcs News/রির্পোট,বাংলাদেশ পুলিশ
পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স, ঢাকা।