শুক্রবার ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পুলিশ সদস্যকে অবরুদ্ধ করে রাখলো,বেপরোয়া কিশোর গ্যাং

আপডেটঃ ২:৩৬ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

বিয়ের বাড়িতে গান বাজানো কে কেন্দ্র করে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের মতিহার থানার মির্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই নাসিরকে অবরুদ্ধ করে রাখে একদল কিশোর গ্যাং।ঘটনা সুত্রে জানা যায় আজ শনিবার সকাল ১১ টার দিকে রাজশাহী মতিহার এলাকায় বিয়ের বাড়িতে একদল কিশোর উচ্চস্বরে গান বাজাতে থাকে।এসময় এলাকার ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ গান বাজনা বন্ধ করতে বললেও ওই কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা আরো জোরে মাইক বাজানো থাকে।এ সময় রাজশাহী মির্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির টহলরত এএসআই নাসিরকে বিষয়টি এলাকাবাসী জানালে এএসআই নাসির উচ্চস্বরে গান বাজানো বন্ধ করতে বললে ওই বিয়ের বাড়ীতে থাকা কিশোর গ্যাং এর কয়েকজন সদস্যর উল্টো এএসআই নাসির এর উপরে চড়াও হয়।

এক পর্যায়ে বিয়ের বাড়িতে ওই কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা আরো বেশকিছু সদস্যকে গুটিয়ে নিয়ে এএসআই নাসিরকে অবরুদ্ধ করে রাখার চেষ্টা করে।এ সময় এএসআই নাসির বিষয়টি মতিহার থানার মির্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সুদীপ্তকে জানালে সাথে সাথে মতিহার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে।এবং ঘটনাস্থল থেকে এএসআই নাসিরকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।স্থানীয় সুত্রটি জানায়, অত্র এলাকার বখাটে রনি (২৫) পিতা- মৃত আকবর, আসিফ (১৯) পিতা- মাসুদ, সোহাগ ২০ পিতা- সেবেন,নবাব,পিতা-অজ্ঞাত, রিয়াজ ও মাদক মামলার অন্যত্তম আসামী ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দানকারী বনি মির্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির টহলরত এএসআই নাসিরকে অবরুদ্ধ করে রাখার চেষ্টা করে।

ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করা মতিহার থানার এসআই শিউলি বলেন – বিয়ের বাড়ি উপলক্ষে অত্যন্ত উচ্চস্বরে গান বাজনা বাজানো হচ্ছিল এ সময় মির্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির টহলরত এসআই নাসির তাদেরকে নিষেধ করলে তারা উল্টো এর উপর চড়াও হয় এ সময় কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা উল্টো নাছিরকে এখানে কেন এসেছেন বলে অবরুদ্ধ করে রাখার চেষ্টা করে।এ বিষয়ে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র এ এডিসি রুহুল উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনকে জানান বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অবগত আছি এবং বিয়ের বাড়িতে কে বা কাহারা নিষেধ করার পরও এত উচ্চস্বরে গান বাজাচ্ছিল সে বিষয়টিও আমরা খতিয়ে দেখছি তবে স্থানীয় এলাকাবাসীর অনেকেই জানিয়েছেন ইদানিং মতিহার থানা এলাকায় কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা অনেক সক্রিয় হয়ে উঠেছে অতি দ্রুত এদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

IPCS News/রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।