শুক্রবার ১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা: রাজশাহীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ

আপডেটঃ ১:০৩ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে গুলি করে হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।গত ফেব্রুয়ারি  বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট এই মানববন্ধনের আয়োজন করে রাজশাহী সাংবাদ ইউনিয়ন।মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন- রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রফিকুল ইসলাম।সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হকের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, সিনিয়র সাংবাদিক আকবারুল হাসান মিল্লাত, রাজশাহী প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইদুর রহমান, রাজশাহী টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (আরটিজেএ) সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান শ্যামল, আরইউজের সাবেক সভাপতি কাজী শাহেদ, সাধারণ সম্পাদক মামুন-অর-রশিদ, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের রাজশাহী প্রতিনিধি মাইনুল হাসান জনি,দৈনিক সমাচারে রাজশাহী প্রতিনিধি আবুল কালাম আজাদ, বিএফইউজের সদস্য জাবীদ অপু, রাজশাহী ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ সিনিয়র ফটোসাংবাদিক আজাহার উদ্দিন, সেলিম জাহাঙ্গীর প্রমুখ।এসময় রাজশাহীতে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকটনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, সাংবা‌দিক নি‌পীড়ন ও হত‌্যা মে‌নে নেওয়া যায় না।অবিলম্বে সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে গুলি করে হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।সারা‌দে‌শে সংবাদকর্মীদের হয়রানি বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান তারা।উল্লেখ্য, গত শুক্রবার উপজেলার চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশও কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল ও শটগানের গুলি ছোড়ে।

ঘটনার ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে ত্রিমুখী সংঘর্ষের মুখে পড়ে গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক মুজাক্কিরসহ ৭-৮জন।পরে আশংকাজনক অবস্থায় মুজাক্কিরকে প্রথমে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে গত শনিবার রাত ১০টা ৪৫মিনিটে তার মৃত্যু হয়।মুজাক্কির অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা বাজারের নোয়াখালী প্রতিনিধি ছিলেন।

IPCS News/রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।