রবিবার ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মেট্রোরেল যাত্রীভাড়া নির্ধারণের সিদ্ধান্ত আসছে মার্চে কিলোমিটারে ভাড়া ২. ৪০পয়সা প্রস্তাব

আপডেটঃ ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

দেশের প্রথম মেট্রো রেলপথ ঢাকার উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত নির্মাণ হচ্ছে।এটি পরে কমলাপুর পর্যন্ত বাড়ানো হবে।স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আগামী ১৬ ডিসেম্বর উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশ পর্যন্ত এই উড়াল রেলপথ চালুর লক্ষ্যে দ্রুত প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে।সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে গত ১১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত এ সংক্রান্ত সমন্বয় সভায় জানানো হয়, মেট্রো রেলের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাব তৈরি করছে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড- ডিএমটিসিএল।ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড- ডিএমটিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এম এ এন ছিদ্দিক বলনে, আমরা এ সংক্রান্ত বিষয়ে তথ্যউপাত্তসহ সর্বশেষ পরিস্থিতি গত ১৯ জানুয়ারি অবহিত হয়েছি। মেট্রো রেলের ভাড়া নির্ধারণে যুক্ত আমাদের সংস্থার কর্মকর্তারা বলেছেন, পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাব তৈরি করতে দেড় মাস সময় লাগবে।আমরা এ সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাব তৈরি করতে পারব।

রেলপথের ভাড়া নির্ধারণে গঠন করা হয়েছে সাত সদস্যের কমিটি।গত ১০ জানুয়ারি কমিটি অংশীজনদের নিয়ে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ- ডিটিসিএ কার্যালয়ে এ সংক্রান্ত প্রথম সভা করেছে।জানা গেছে, উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রো রেলের পুরো পথ অতিক্রম করলে একজন যাত্রীর জন্য ৪৮ টাকা ২৫ পয়সা ভাড়ার প্রস্তাব করা হয়েছে।কিলোমিটারে যাত্রীপ্রতি ভাড়ার হার প্রস্তাব করা হয়েছে ২ টাকা ৪০ পয়সা।সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, উত্তরা থেকে মতিঝিল যেতে অর্থাৎ যাত্রা শুরুর স্টেশন থেকে শেষ স্টেশন পর্যন্ত পৌঁছাতে সময় লাগবে ৪০ মিনিট।রেলপথে থাকবে ১৬টি স্টেশন। পুরো রেলপথ ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ।

প্রতিটি ট্রেনে ছয়টি কোচ থাকবে।তার মধ্যে একটি থাকবে নারীদের জন্য।অন্যগুলোতে নারী ও পুরুষ যাত্রীরা ভ্রমণ করতে পারবেন।উড়াল রেলপথ নির্মাণে বাংলাদেশ সরকার ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা- জাইকার ঋণ, দৈনিক খরচ, পরিচালন ব্যয়, কর্মীদের বেতন, বিদ্যুৎ বিলসহ বিভিন্ন খাতে ব্যয় পর্যালোচনা করে ভাড়ার হার প্রস্তাব করেছে কমিটি।কমিটির পর্যালোচনাপত্রে দেখা গেছে, এই রেলপথ পরিচালনার জন্য দৈনিক ব্যয় হবে দুই কোটি ৩৩ লাখ ৫ হাজার ৭৪১ টাকা।এছাড়া অন্যান্য ব্যয় ধরে তা হিসাব করে ভাড়ার হার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এই প্রকল্পে ব্যয় হচ্ছে ২১ হাজার ৯৮৫ কোটি টাকা।এর মধ্যে জাইকা ঋণ হিসেবে দিচ্ছে ১৬ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা। বাকি অর্থের জোগান দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।উত্তরা থেকে পল্লবী-রোকেয়া সরণির পশ্চিম পাশ দিয়ে খামারবাড়ি হয়ে ফার্মগেট-হোটেল সোনারগাঁও-শাহবাগ-টিএসসি-দোয়েল চত্বর-তোপখানা রোড-বাংলাদেশ ব্যাংক পর্যন্ত রেলপথটি নির্মাণ হচ্ছে।পরে জসিম উদ্দিন রোডের একটি অংশ হয়ে দক্ষিণ দিক দিয়ে সার্কুলার রোডসংলগ্ন কমলাপুর রেলস্টেশন পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের চিন্তা আছে।তখন ভাড়ার হার আরও বেড়ে যাবে বলে জানান কমিটির একাধিক সদস্য।

ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ- ডিটিসিএ চলতি মাসে এই ভাড়ার হার প্রস্তাব করে।ডিটিসিএ’র নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান বলেন, আমরা ভাড়ার হার প্রস্তাব করেছি।সেটা চূড়ান্ত করতে অংশীজনদের নিয়ে আরও বৈঠক করব।

IPCS News/রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।