বুধবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীর সব কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

আপডেটঃ ১২:১৪ অপরাহ্ণ | মার্চ ২৪, ২০১৯

অনলাইন সংস্করণ

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীর সব কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে শনিবার রাতে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্স ভরে রাখা ও অনিয়মের অভিযোগে এ ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। এ ঘটনার ফলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী মডেল থানার ওসি মো. শামসুদ্দিনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

রোববার কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত জাহান কেয়া, কিশোরগঞ্জ জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মো. তাজুল ইসলাম জানান, রাতেই কিছু কতিপয় দুষ্কৃতকারী ভয়ভীতি দেখিয়ে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্সে ভরে রাখার অভিযোগে প্রথমে পাঁচটি কেন্দ্র ভোটগ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

পরর্বতীতে নির্বাচন সচিবের নির্দেশে কটিয়াদী উপজেলার মোট ৮৯ কেন্দ্রের সব কার্যক্রম স্থগিত করে বন্ধ ঘোষণা করায় এখন আর এ নির্বাচন হচ্ছে না।প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা কেন্দ্র থেকে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে মালামাল ও জনবল নিয়ে ফিরতে শুরু করেছেন।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে জানা গেছে, তৃতীয় ধাপে ২৫ জেলার ১১৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ ধাপে ১২৭ উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল। বাকি ১০ উপজেলার মধ্যে ছয় উপজেলায় সব পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় সেখানে ভোটগ্রহণের প্রয়োজন হচ্ছে না।

এছাড়া চট্টগ্রামের লোহাগড়া ও কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাচন আদালতের আদেশে স্থগিত করা হয়েছে। আর নরসিংদী সদর ও কক্সবাজার সদরের নির্বাচনের ৩১ মার্চ চতুর্থ ধাপের ভোটে নেয়া হবে।সূত্রে জানা গেছে, তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩৩, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৯ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৩ প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

ভোট হতে যাওয়া ১১৭ উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩৪০, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫৮৪ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩৯৯ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ধাপের নির্বাচনে ৯ হাজার ২৯৮ ভোট কেন্দ্র ও এবং কোটি ১৮ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫১ ভোটার রয়েছেন।

Ipcs News/রির্পোট