বুধবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

বোরোচাষে ব্যস্ত রাজশাহীর কৃষক

আপডেটঃ ৬:৪২ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

চলতি মৌসুমে বোরোচাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন রাজশাহীর চাষিরা।সরকার সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে আমন ধান কেনা শুরু করায় বর্তমানে ধানের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।এতে এবার বোরোচাষের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন বোরোচাষি ও কৃষিবিদরা।কৃষিবিদ ও বোরোচাষিদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, আমন মৌসুমের ধান ওঠার পর সরকার চাষিদের ধানের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে চাষিদের নিকট থেকে ধান এবং মিলারদের নিকট থেকে চাল কেনার উদ্যোগ নেয়।রাজশাহীতে আমন মৌসুমের ধান-চাল সংগ্রহ অভিযান এখনও চলছে।এতে বাজারে ধানের ও চালের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।এখন ধান বিক্রি করে চাষিরা ভালো দাম পাচ্ছেন।এতে এবার বোরোচাষের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে তারা মনে করছেন।পবার কর্ণহার বড়বিলা পানি ব্যবস্থাপনা অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি চাষি নূরুল আমিন সিদ্দিকী বলেন, আমার এলাকার চাষিরা বোরোর চারা রোপণ ও জমি তৈরি করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

এবার আমি ৫ বিঘা জমিতে বোরোচাষ করবো।রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, এবার রাজশাহীতে ৬৫ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে।বীজতলার লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩ হাজার ২১৭ হেক্টর।রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ সামছুল হক বলেন, ইতোমধ্যে এই অঞ্চলের চাষিরা বোরোধানের চারা রোপণ শুরু করেছেন।আবহাওয়া এখন পর্যন্ত বোরোচাষের অনুকূলে রয়েছে।উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা মাঠে থেকে চাষিদের সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিচ্ছেন।ধানের দাম ভালো থাকায় এবার বোরোচাষের লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।এখানে বীজতলার লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩ হাজার ২ শ হেক্টর।তা ছাড়িয়ে বীজতলা তৈরি হয়েছে ৩ হাজার ৮ শ হেক্টরে।ফলে বোরোচাষ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় দেড় হাজার হেক্টর বৃদ্ধি পেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

IPCS News/রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।