শনিবার ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জলচর পাখি শুমারির ১ম দিনে পদ্মায় ৪১ প্রজাতির ২৭০৯ টি জলচর পাখি

আপডেটঃ ৩:০৮ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৫, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

শুরু হয়েছে এ বছরের জলচর পাখিশুমারি।শুমারির প্রথম দিন ৪ জানুয়ারি সোমবার রাজশাহীর পদ্মা নদীর ৩৯ কিলোমিটার এলাকায় ৪১ প্রজাতির মোট ২৭০৯টি জলচর পাখি পাওয়া গেছে।এর মধ্যে সর্বোচ্চ পাওয়া গেছে ৫৭৭টি প্রিয়ং হাঁস।বিরল প্রজাতির পাখির মধ্যে আছে কালো মানিকজোড় ও একটি ফুলুরি হাঁস।প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক সংঘ আইইউসিএন বাংলাদেশের ওয়াইল্ড বার্ড মনিটরিং প্রোগ্রাম ও সুইডেনের লিনিয়াস বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে সোমবার থেকে পাখিশুমারি শুরু হয়েছে।আইইউসিএন বাংলাদেশ প্রতি বছর পাখিশুমারি করে।পাখিশুমারিতে স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান হিসেবে সহযোগিতা করছে বাংলাদেশ বার্ড ক্লাব, রাজশাহী বার্ড ক্লাব ও বন অধিদপ্তরের সদস্যবৃন্দ।

রাজশাহীর পদ্মা নদীর প্রায় ৩৯ কিলোমিটার অংশে পাখিশুমারি করা হয়েছে।রাজশাহীতে পদ্মা নদীর চর খানপুর থেকে শুরু করে মাঝারদিয়াড় চর পর্যন্ত শুমারির কাজ চালানো হয়।আগামী এক সপ্তাহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাখিশুমারি চলবে।বছর শেষে ওয়েটল্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি সংস্থা থেকে পাখিশুমারির ফল প্রকাশ করা হবে।আইইউসিএন বাংলাদেশের সিনিয়র প্রোগ্রাম কর্মকর্তা সরোয়ার আলম দিপু জানান, এ বছর পদ্মা নদীতে পরিযায়ী পাখির প্রজাতি বাড়লেও পাখির সংখ্যা কম।গত বছরের শুমারিতে পদ্মা নদীর ওই এলাকায় ৩৭ প্রজাতির মোট ৪০২৫টি পাখি গণনা করা হয়েছিল।