শুক্রবার ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সৈন্দর্যের শহর রাজশাহী তারের জঞ্জালে ক্ষতবিক্ষত

আপডেটঃ ৭:৩৪ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ৩১, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতায় ও সৈন্দর্যের রানি খ্যাত রাজশাহী মহানগরীর সুনাম রয়েছে দেশজুড়ে।রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের হাত ধরে এই সুনাম অর্জন করেছে এ মহানগরী।বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যার ভূয়শী প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বয়ং।কিন্তু দেশ-বিদেশে সুনাম অর্জনকারী রাজশাহী মহানগরীর সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে বিদ্যুৎ, ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট ক্যাবল অপারেটরদের তারের জঞ্জালে।নগরের বিভিন্ন সড়ক ও গলিপথে বৈদ্যুতিক খুঁটি ও ল্যাম্পপোস্টে জড়িয়ে থাকা তারের জঞ্জালের কারণে আর্থিং, শর্ট সার্কিট হয়ে প্রায়স ঘটছে অগ্নিকা-সহ দুর্ঘটনা।তারের জঞ্জাল কমাতে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মহানগরবাসীর সচেতন মহল।মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বৈদ্যুতিক খুঁটিগুলো ও ল্যাম্পপোস্টে তারের জঞ্জাল ঝুলছে।ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট ক্যাবল অপারেটরদের তারের ভারে খুঁটিগুলো বিপজ্জনক হয়ে পড়েছে।বিশেষ করেন মহানগরীর সাহেব বাজার, জিরোপয়েন্ট, আরডিএ মার্কেটের সামনে, মনিচত্বর, রাণীবাজার, আলুপট্টি, নিউ মার্কেট, বর্ণালী মোড়, শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বর, লক্ষীপুর মোড়, তালাইমারি, কোর্ট চত্বর, কোর্ট স্টেশন এলাকাসহ সহ মহানগরীজুড়ে একইচিত্র।এসব তারের জঞ্জালে একদিকে নগরের সৌন্দর্যহানি হচ্ছে, অপরদিকে বিভিন্ন সময় ঘটছে অগ্নিকা- সহ বিভিন্ন দুর্ঘটনা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শহরকে তারের জঞ্জাল থেকে মুক্ত করতে নগরে বিদ্যুৎলাইন এবং ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট ক্যাবল অপারেটরদের লাইন মাটির নিচে নেওয়ার কাজটি করতে হবে।এই ভূগর্ভস্থ লাইন নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করবে।পাশাপাশি সিস্টেম লস কমিয়ে রাষ্ট্র ও জনগণের উপকার করবে।ঝড়-বৃষ্টিতেও বিদ্যুৎ সংযোগ ব্যাহত হবে না।একই সাথে মহানগরীর সৌন্দর্য্যহানিও হবে না।নগর পরিকল্পনাবিদরা বলছেন, মাটির নিচে বিদ্যুতের তার নেওয়া হলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা কমে যাবে।প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও বর্ষায় তার ছিঁড়ে পড়ার ভয়ও থাকবে না।নান্দনিক শহর গড়ে তুলতে তারের জঞ্জাল সরানো জরুরি।

মহানগরবাসী বলছেন, পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতায় রাজশাহী দেশসেরা।পরিচ্ছন্নতাই সবাই প্রশংসা করেন।এতে আমরা গর্বিত।কিন্তু যখন দেখি পরিচ্ছন্ন শহরের সৌন্দর্য্যহানি হচ্ছে তারের জঞ্জালের কারণে, তখন এটি আমাদের খারাপ লাগে।তারের জঞ্জাল ঝুঁকিপূর্ণও বটে।তারের জঞ্জালমুক্ত মহানগরী গড়তে এখই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন সূত্র জানিয়েছে, ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট ক্যাবল অপারেটরদের তারের জঞ্জালে সরাতে বারবার তাগিদা দিয়েছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ।এরপরও তারের জঞ্জাল সরাচ্ছে না তারা।

বিভিন্ন বিদ্যুতের খুটি ও ল্যাম্পপোস্টের সাথে অতিরিক্ত তার পেচিয়ে রাখছে ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট ক্যাবল অপারেটরা।উল্লেখ্য, ২৩ নভেম্বর সোমবার রাজশাহী নগরীর জিরোপয়েন্ট এলাকায় বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটের কারণে বৈদ্যুতিক পোলে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

IPCS News /রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।