শনিবার ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

কটিয়াদীতে (কুড়) নামক জলাশয় উন্মুক্ত করে দেওয়ায় মাছ ধরতে স্থানীয়রা পানিতে।

আপডেটঃ ৪:২৭ অপরাহ্ণ | মার্চ ১৪, ২০১৯

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :

কিশোরগঞ্জের,কটিয়াদী,উপজেলায়   
লোহাজুরী ইউনিয়নের  (কুড়)নামক জলাশয়টি উন্মুক্ত করে দেন এক উদ্যোক্তা। কুড়টি অবস্থিত লোহাজুরীর মরুদ্বীপ ৭১ স্বাধীনতা পার্কের পাশে।এই কুড়টি তিন বছর পর পর সরকার একটি মৎস্য সমিতির মাধ্যমে নিলামে তুলে।কুড়টি দীর্ঘ দিন ধরে পরিচালনার দায়িত্বে আছেন, এ্যাডভোকেট লায়ন মোঃনুরুজ্জামান ইকবাল সাহেব। এই জলাশয় নামক কুড়টিতে ২৩ জন মৎস্য জীবিরা মাছ চাষ করে থাকেন।এই বিষয়ে এ্যাডভোকেট লায়ন মোঃ নুরুজ্জামান ইকবাল সাহেব বলেন,আমি অনেক দিন ধরে বিশাল  জমি নিয়ে গঠিত কুড়টিতে ভিবিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে থাকি যেমন, পাংগাস, রুই,তেলাপিয়া  মিররকার্প ,শৈল, সিলবার কার্প আরোও অনেক দেশি মাছ  চাষ করে  থাকি। 
সমিতির সদস্যদের সহযোগিতায় তিনি এই জলাশয়টি খুব ভালোভাবে পরিচালনা করে আসছেন । তিনি মরুদ্বীপ ৭১ স্বাধীনতা পার্ক এর একজন উদ্যোক্তা।

তিনি বলেন তার এলাকাবাসীর জন্য অঢেল ভালবাসা থাকায়, তার এলাকাবাসীদের জন্য প্রতি বছর প্রায় ৩ থেকে ৪ লক্ষ টাকার মাছ একদিনে জন্য এলাকাবাসীদের মাঝে  উন্মুক্ত করে দেন। কারন তিনি মনে করেন যে,এটা তার এলাকাবাসীর একটা হক্।তাই তিনি এলাকাবাসীর জন্য এই জলাশয়টি প্রতি বছর  এক দিনের জন্য উন্মুক্ত করে দেন।  তিনি আরো জানান যে, সারাজীবন এভাবেই এলাকাবাসীর সেবা করে যাবেন। তিনি আরো বলেন,  এই বিশাল জলাশয়টির  মেয়াদ তার অধীনে আরও একমাস থাকা সত্ত্বেও, তার এলাকাবাসীর জন্য কুড়টি উন্মুক্ত করে দেয়,১২-৩-২০১৯ রোজ মঙ্গলবার  সকাল থেকে সারাদিন।  কুড়টি উন্মুক্ত করে দেওয়ায়  স্হানীয়রা তার প্রতি  ভালবাসা প্রকাশ করে । 


অনেকে জাল নিয়ে পানিতে মাছ ধরছেন,কেও কেও আবার মাছ ধরার সরঞ্জাম দিয়ে মাছ ধরছেন। 
স্থানীয়রা বলেন, এভাবে কুড় থেকে মাছ ধরাটা খুবই খুশির একটা বিষয়। এই বিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় মেম্বার জনাব আব্দুর রশিদ  দৌলত বলেন যে, ইকবাল সাহেবের এই কাজটি আমাদের এলাকাবাসির জন্য খুবই আনন্দদায়ক।তিনি আরও বলেন, একজন উদ্দ্যোক্তা হিসেবে  তার এই কাজটি মানব সেবা মূলক একটি কাজ।এলাকাবাসীরা ও তার কাছ থেকে এরকম মানবসেবা মূলক কাজটি সবসময় আশা করেন।

IPCS News-জাকির – রুবেল