বৃহস্পতিবার ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ ইং ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

কটিয়াদীতে রোপা আমন বিনা ধান-১৭ জাতের মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আপডেটঃ ৬:০৯ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১৩, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের আয়োজনে ২০১৯-২০ অর্ত বছরে রাজস্ব খাতের অর্তায়নে স্থাপিত প্রদর্শনীর রোপা আমন বিনা ধান-১৭ জাতের ধানের প্রদর্শনী ও কর্তন মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।১১ নভেম্বর বুধবার বিকালে উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের টুনিয়ারচর (টাইগার মোড়ে) কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরাধীন কটিয়াদী উপজেলা কৃষি অফিসের সহযোগিতায় ওই মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।অত্র এলাকার প্রবীনকৃষক হাজী নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অফিসার শারমিন সুলতানা।লোহাজুড়ি বল্কের উপ-সহকারি মিজানুর রহমান সঞ্চালণায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ১০নং জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ গোলাপ মিয়া,জালালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল খালেক সরকার রাজু,জালালপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড সাধারন সম্পাদক মোঃ মাসুদ মিয়া,৬নং ওয়ার্ড সাধারন সম্পাদক আব্দুল মালেক,চরঝাকালিয়া বল্কের উপ-সহকারি আব্দুল কুদ্দুছ,কৃষক আল আমিন প্রমুখ।

এসময় বিভিন্ন বল্কের কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন,স্থানীয় কৃষক-কৃষাণি,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মী ও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন।উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের প্রদর্শনী কৃষক আল আমিনের ৩৩ শতক জমিতে ফলন হয়েছে ১৮ মণ।যা জালালপুর ইউনিয়নের কৃষককে আশার আলো দেখাচ্ছে।এই বিনা ধান-১৭ সময় লেগেছে ১১৫ দিন থেকে ১২০ দিন।কীটনাশক,সার,বীজ খরচ বাদে শ্রমিক মজুরিসহ খরচ হয়েছে ২০০০ টাকা।বিনা ধান-১৭ কাটার পরে কৃষকরা অনায়াশে শীতকালীন শাক সবজী চাষ করতে পারেন।ফলে একই জমিতে দুই ফসল পাওয়ায় কৃষকরা অধিক লাভবান।এই জাতের ধান পেয়ে কৃষকরা খুব খুশি।

IPCS News /রির্পোট, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি।