বুধবার ২১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

মুক্তি যোদ্ধার পর এবার রামেক শিক্ষক লাঞ্ছিত

আপডেটঃ ১২:১১ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসদের হাতে মারপিটের শিকার বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসাহাক আলীর কাছে ক্ষমা চাওয়ার ঘটনার মাস না পেরুতেই ফের এক কলেজ শিক্ষককে, কর্তব্যরত চিকিৎসক ও আনসার সদস্য  লাঞ্ছিত করেছে।২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে রামেক হাসপাতালের ৪ নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।লাঞ্ছিত শিক্ষকের নাম মামুনুর রশীদ রিপন।সে নগরীর বঙ্গবন্ধু কলেজের অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক তিনি।লাঞ্ছিত শিক্ষক জানান, তিনি গত বৃহস্পতিবার দুপুরে অসুস্থ হয়ে রামেক হাসপাতালের ৪ নং ওয়ার্ডে ভর্তি হলে তাকে ভালোভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিলনা।এমনকি শুক্রবার দুপুরে ওয়ার্ডের সিএ তাকে চিকিৎসা দেয়ার সময় তার সাথে দুর্ব্যবহার করলে প্রতিবাদ জানান শিক্ষক রিপন।

এ সময় সিএ ওয়ার্ডের অন্য চিকিৎসক ও ইন্টার্নদের ডেকে তার উপর চড়াও হন।এর কিছুক্ষণ পরে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা আনসার সদস্যদের ডেকে তাকে মারধর করায়।এরপর শিক্ষক রিপনের কাছে লিখিত মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়।তিনি বলেন মুচলেকার কাগজে লেখা ছিল, রিপন চিকিৎসকদের সঙ্গে খারাপ,অশ্লীল ও অসাদাচরণ করেছেন।তিনি এমন লেখায় স্বাক্ষর করতে না চাইলে জোর করে মুচলেকার কাগজে তার টিপসই নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে তিনি আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণের কথা ভাবছেন বলেও জানান।এবিষয়ে জানতে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিলুর রহমানকে তারমেুঠোফোনে একাধিকবার ফোনদিলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।রামেক হাসপাতালের আনসার ক্যাম্পের প্লাটুন কমান্ডার আসাদ বলেন, আনসার সদস্যরা যাওয়ার আগে কি হয়েছে তা আমি জানিনা।তবে আনসার সদস্যরা যাওয়ার পর তাকে মারধর করা হয়নি।তবে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা তার থেকে লিখিত মুচলেকা ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

IPCS News /রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।