রবিবার ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

রাশাহীর শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মোফা কোটি টাকার হেরোইনসহ আটক

আপডেটঃ ৫:৫৯ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২২, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহীর গোদাগাড়ীর শীর্ষ মাদক কারবারি কাউন্সিলর মোফা(৫৭) কে, কোটি টাকার হেরোইনসহ আটক হয়েছে র‌্যাব-৫।সে গোদাগাড়ী পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে।থানা পুলিশের দালাল হিসেবে এতোদিন দাপটের সাথে মাদক কারবার চালিয়ে আসছিলো।তার দাপটে স্থানীয় বাসিন্দারাও ছিলেন ভয়ে তটস্থ।মাদক কারবারের পাশাপাশি থানার দালালি করেও কোটিপতি বনে যান এই মোফা।তার বিরুদ্ধে থানায় ডজন খানিক  মাদকের মামলা রয়েছে।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাদক কারবারিদের তালিকার শীর্ষ কাতারে তার নাম আছে।র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতের রাজশাহীর সিপিএসসি, মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি অপারেশন দল ২১ আগস্ট সকাল ৮ টার দিকে রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী থানাধীন মহিশালবাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে  শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মোফাজ্জল হোসেন ওরফে মোফাকে (৫৭) আটক করে।এসময় তার নিকট থেকে ১ কেজি ৩৩০ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী থানায় মাদ্রকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু হয়েছে।এদিকে  কাউন্সিলর মোফাজ্জল হোসেন মোফার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের মামলাও রয়েছে।নির্যাতনের পর থানা মামলা না নেওয়ায় মিনা খাতুন (৩৩) নামের এক নারি, রাজশাহী পুলিশ সুপারের কাছে যান ন্যায় বিচার চাইতে।এসপির নির্দেশের  পরও থানা মামলা নেয়নি।শেষে বিভিন্ন মাধ্যমে অবগত হয়ে এসপির  কঠোর নির্দেশের পর থানা মামলা নিতে বাধ্য হলেও, মামলাটি নিয়ে পুলিশ নানান কাহিনীর জন্ম দিয়েছে।নির্যাতিত মিনা খাতুনের অভিযোগ করেছিলেন, এসপির নির্দেশে গোদাগাড়ী থানার ওসি মামলা নিলেও নির্যাতনকারী মাদক সম্রাট মোফাকে কৌশল করে জামিনে বের হয়ে এসেছে।জামিনে এসে মোফা তাকে ঘরছাড়া করতে উঠে পড়ে লাগে।দুই সন্তানসহ তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি অব্যহত রেখেছে।ফলে ডিআইজি ও এসপির নিকট  দুই সন্তানসহ নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে লিখি আবেদন করেছেন মিনা খাতুন।গোদাগাড়ী থানা পুলিশের সহযোগিতায় এভাবে নানা অপকর্মের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলো এই মোফা।

IPCS News /রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ।