সোমবার ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

লীজকৃত দীঘিতে মাছ ধরা ও নিরাপত্তার দাবিতে মানববন্ধন

আপডেটঃ ৩:১৮ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৫, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় মকসেদ আলী প্রামাণিক নামে এক ব্যক্তির লীজ নেয়া দীঘিতে মাছ ধরা ও তার নিরাপত্তার দাবিতে মানববন্ধন করেছে। গত ২১ জুলাই মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৪ টায়, উপজেলার বিন্দুরি দীঘি সংলগ্ন কনোপাড়া এলাকায় এ মানববন্ধন হয়। মৎসচাষী মকসেদ আলীর বাড়ি এ গ্রামেই।মানববন্ধন থেকে, মকসেদ আলী প্রামানিক জানান,সে উপজেলার কনোপাড়া এক নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহলের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে চরম তিনি, চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।তার আইনগত ভাবে লীজ নেওয়া দীঘিতে প্রায় কোটি টাকা বিনিয়োগ করেও তার চাষ করা মাছ  বিক্রি করতে পারছেন না।এতে করে তিনি আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন।তিনি, সাংবাদিকদের জানান, দীঘিটি তিনি ৩ (তিন) বছরের জন্য লীজ নিয়েছন।কিন্তু স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের ষড়যন্ত্রের কারণে দীঘিতে চাষ করা  মাছ উঠাতে পারছনা।সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ ছাড়াই মহলটি ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে দীঘির ওপর স্থগিতাদেশ জারি করিয়েছে।
উল্লেখ্য যে,গত বৃহস্পতিবার থেকে কনোপাড়া এলাকার দীঘির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন।বিষয়টি ভালোভাবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের কাছে অনুরোধও জানান তিনি।এছাড়া নিজের নিরাপত্তাও দাবি করেন তিনি।তিনি আরো বলেন, স্থানীয় আব্দুল মান্নান নামের এক ব্যক্তি প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে তাকে নানা সমস্যায় ফেলার চেস্টা অব্যহত রেখেছে।তার পেশি শক্তির কাছে তিনিসহ এলাকাবাসী অসহায়।আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সাথে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে।তার বিরুদ্ধে থানায় বর্তমানে ১৩টি মামলা চলমান রয়েছে। কিন্তু পুলিশ-প্রশাসন তার পক্ষেই অবস্থান নিয়েছে।তিনি বা গ্রামবাসী কোন সহায়তা পাচ্ছেন না।এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আব্দুল মান্নানের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার সাক্ষাত বা বক্তব্য পাওয়া যায়নি।বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, দীঘিকে কেন্দ্র করে থানায় প্রায় ২০টি মামলা রয়েছে।অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে দিঘী এলকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

IPCS News /রির্পোট, আবুল কালাম আজাদ (রাজশাহী)।