শনিবার ১৫ই আগস্ট, ২০২০ ইং ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে ৩ দিনের রিমান্ডে ডিবি হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ

আপডেটঃ ৩:৩২ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৪, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

ভুয়া করোনা টেস্টের রিপোর্ট তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।এর আগে সোমবার রাতে মামলাটি তেজগাঁও থানা থেকে তদন্তের জন্য ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) বিভাগে স্থানান্তর করা হয়েছে।মঙ্গলবার সকালে এ ব্যাপারে তেজগাঁও থানার ওসি বলেন, আমরা মামলার ডকেট ও আসামিকে গোয়েন্দা কার্যালয়ে পাঠিয়ে দিয়েছি।

ঢাকার মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান পুলিশের চার দিনের রিমান্ডের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে এই আদেশ দেন।জাতীয় হূদেরাগ ইনস্টিটিউটের সাসপেন্ডকৃত কার্ডিয়াক সার্জন ডা. সাবরিনা শারমিন হুসাইন ওরফে সাবরিনা আরিফ চৌধুরীকে ৩ দিনের রিমান্ডে ডিবি জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

সেই সাথে এদিকে, শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে ডা. সাবরিনাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়।রবিবার (১২ জুলাই) মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আব্দুল মান্নান স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত এক অফিস আদেশ জারি করা হয়।

জানা গেছে, আইইডিসিআরের অনুমোদন নিয়ে জেকেজি হেলথ কেয়ার ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে করোনার নমুনা সংগ্রহের জন্য ৪৪টি বুথ স্থাপন করে।প্রতিদিন ৪০০ থেকে ৫০০ জনের নমুনা সংগ্রহ করত তারা।এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তারা ২৭ হাজার করোনা রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে কোনো পরীক্ষা ছাড়াই ১৫ হাজার ৪৬০টি মনগড়া ভুয়া রিপোর্ট দিয়েছেন।বাকি ১১ হাজার ৫৪০টি রিপোর্ট দিয়েছেন আইইডিসিআরের মাধ্যমে।জেকেজির গুলশানের অফিস থেকে ১৫ হাজার ৪৬০টি ভুয়া রিপোর্ট দিয়ে এই দম্পতি হাতিয়ে নিয়েছেন প্রায় ৮ কোটি টাকা।আরিফের গ্রেপ্তারের খবর পেয়ে দুই জন ব্যবসায়ী তেজগাঁও থানায় আরো দুটি মামলা করেন।এর একটিতে ১২টি ল্যাপটপ ভাড়া নেওয়ার নামে আত্মসাত করা এবং অন্যটিতে দুটি আর্চওয়ে ও ২০টি ওয়াকিটকি কিনে টাকা না দেওয়ার অভিযোগ করা হয়।

IPCS News / জাহাঙ্গীর হোসেন, ক্রাইম রিপোর্টার।