বৃহস্পতিবার ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

পীরের মাজারে টাকা দিতে হবে বলে এক লক্ষ চারশত টাকা হাতিয়ে নেয় এক প্রতারক দম্পত্তি

আপডেটঃ ২:২৩ অপরাহ্ণ | জুন ২৪, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহীর চারঘাট মডেল থানা পুলিশ গত ১৯-০৬-২০২০ ইং তারিখ দুইজন প্রতারককে আটক করে। আটককৃত ব্যক্তিদের নাম হচ্ছে ১। মোঃ সুমন রায়হান সেলিম রেজা(৩৫), পিতা-মৃত ঈমান আলী, সাং-কাঁঠালবাড়িয়া, থানা-পুঠিয়া, জেলা-রাজশাহী, বর্তমান সাং-সুলতানপুর, থানা ও জেলা-নাটোর, ২।মোসাঃ মমতাজ বেগম(৩৪), স্বামী-মোঃ সুমন রায়হান সেলিম রেজা, পিতা-মোঃ আমির হোসেন, সাং-বড় বালাদিয়ার, থানা-চারঘাট, জেলা-রাজশাহী।প্রতারক দুইজন সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী।

উল্লেখ্য যে, মোসাঃ সবুর জান, স্বামী-সুখ চাঁদ, সাং-বড় বালাদিয়ার, থানা-চারঘাট, জেলা-রাজশাহী নামক এক মাহিলার নিকট হতে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে প্রতারক দুইজন এক লক্ষ চারশত টাকা নিয়ে নেয়।প্রতারক দম্পত্তির মধ্যে মমতাজ বেগম প্রতারণার শিকার হওয়া তার প্রতিবেশী সবুর জানকে প্রতারণামূলকভাবে ভুল বুঝিয়ে বলে, তোমার বাড়ির মাটির নিচে একটি স্বর্ণের কলসি আছে এবং আমার স্বামী সুমন রায়হান জ্বীন হাজির করার মাধ্যমে তোমার বাড়ির মাটির নিচ হতে স্বর্ণের কলসি উত্তোলন করতে পারবে।আর এজন্য পীরের মাজারে টাকা দিতে হবে।এই সরল বিশ্বাসে সবুর জান উক্ত দম্পত্তিকে বিভিন্ন দফায় মোট এক লক্ষ চারশত টাকা প্রদান করে।পরবর্তীতে উক্ত দম্পত্তি বিভিন্ন তালবাহানা ও কৌশল শুরু করলে সবুর জান এর মধ্যে সন্দেহের উদ্রেগ হয় ও বুঝতে পারে সে প্রতারণার শিকার হয়েছে।বিষয়টি সে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও থানা পুলিশকে অবহিত করেন। পরবর্তীতে পুলিশ সংবাদ পেয়ে স্থানীয় জনগণের সহায়তায় গত ১৯-০৬-২০২০ ইং তারিখে রাত্রি অনুমান ০৯.০০ টার দিকে তাদের চারঘাট এলাকা হতে গ্রেফতার করে।এ বিষয়ে চারঘাট মডেল থানায় সবুর জান বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।অভিযুক্ত দুইজনকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

IPCS News /রির্পোট।