বৃহস্পতিবার ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

শ্বাসরুদ্ধকর অভিযানে ছিনতাইয়ের কয়েকঘন্টার ব্যবধানে ৩২,০০,০০০/-টাকা উদ্ধার, আটক-০৩।

আপডেটঃ ১:৪৬ অপরাহ্ণ | জুন ২৪, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের শ্বাসরুদ্ধকর অভিযানে ছিনতাইয়ের কয়েকঘন্টার ব্যবধানে ৩২,০০,০০০/-টাকা উদ্ধার, আটক-০৩। VIVO মোবাইল শো-রুমের এসআর (বিক্রয় প্রতিনিধি) হিসেবে কর্মরত মেহেদী হাসান ফাইসাল (২৬), পিতা-মোঃ মিজানুর রহমান, সাং-সায়েরপুকুর (দারুসা), থানা-কর্ণহার, মহানগর রাজশাহী ও SYMPHONY মোবাইল ফোন সেটের ডিস্ট্রিবিউশন এর ম্যানেজার মোঃ সোহেল (৩১), পিতা-মোঃ আঃ কাদের, সাং-দড়িখড়বোনা, হোল্ডিং নং-৪৪৬/১, থানা-বোয়ালিয়া, মহানগর রাজশাহীদ্বয় ১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ অলকার মোড় VIVO মোবাইল শো-রুম হ’তে ৩৭,৪৩,৮০০/-(সাইত্রিশ লক্ষ তেতাল্লিশ হাজার আটশত) টাকা ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এ জমা দেয়ার উদ্দেশ্যে বেলা অনুমান ১২.৪৫ ঘটিকায় বোয়ালিয়া মডেল থানাধীন অলকার মোড় The Raymond shop নামক শো-রুমের সামনে পাকা রাস্তার উপর পৌছালে মেহেদী হাসান ফাইসাল এর ডান কাঁধে থাকা ০১টি কালো কালারের ব্যাগ ( VIVO লেখা) যার মধ্যে ৩৩,০০,০০০/-(তেত্রিশ লক্ষ) টাকা ছিল, উক্ত ব্যাগটি টান দিয়ে ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে বোয়ালিয়া মডেল থানার মামলা নং-১৯, তাং-১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ, ধারা-৩৯২ পেনাল কোড রুজু হয়।

মামলটি থানা পুলিশ ব্যাপক ও নিবিড় ভাবে তদন্ত অব্যাহত রাখে।বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ও তথ্য প্রযুক্তি বিশ্লেষণের মাধ্যমে ১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ আসামী ১।মোঃ তাইজুল ইসলাম ডলার (২৪), পিতা-মোঃ দুলাল হোসেন, মাতা-মোসাঃ তাজিয়া বেগম, সাং-দক্ষিণ নওদাপাড় (সাদেক এর বাড়ীর পাশের), থানা-শাহমখদুম, মহানগর রাজশাহীকে অলকার মোড় VIVO মোবাইল শো-রুমের সামনে হ’তে তাকে আটক করে তাকে সহ তার ০১টি লাল রংয়ের অ্যাপাচি আরটিআর মোটর সাাইকেলটি জব্দ করা হয়।তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে আসামী ২।মেহেদী হাসান ফাইসাল (২৬), পিতা-মোঃ মিজানুর রহমান, সাং-সায়েরপুকুর (দারুসা), থানা-কর্ণহার, মহানগর রাজশাহীকে গ্রেফতার করা হয়।উক্ত আসামীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে আসামী ৩।জাফর ইকবাল (২৮), সিটি ম্যানেজার (VIVO), পিতা-মোঃ আকতার হোসেন, সাং-পলাশী, থানা-গোদাগাড়ী, জেলা-রাজশাহী, এ/পি সাং-অলকার মোড়, থানা-বোয়ালিয়া, মহানগর রাজশাহীকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আটক করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা যায়, বাদী অঞ্জন কুমার রায় (৫২) এর অলকার মোড়ে VIVO মোবাইল শো-রুম আছে। উক্ত শো-রুমে ১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ VIVO মোবাইল সেট ঢাকাস্থ কোম্পানী হ’তে ক্রয় করার জন্য রাজশাহী প্রতিনিধি জাফর ইকবাল মাসুম এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেন। কোম্পানীকে মোবাইল ফোনের অর্ডার দিতে হ’লে তাদেরকে প্রথমত ব্যাংকে টাকা জমা দিতে হয়।

১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ সর্বমোট ৩৫,০০,০০০/-(পঁয়ত্রিশ লক্ষ) টাকা কোম্পানীর একাউন্ট-এ জমা দেয়ার কথা ছিল।VIVO মোবাইল শো-রুমের এসআর (বিক্রয় প্রতিনিধি) হিসেবে কর্মরত মেহেদী হাসান ফাইসাল (২৬) ও SYMPHONY মোবাইল ফোন সেটের ডিস্ট্রিবিউশন এর ম্যানেজার মোঃ সোহেল (৩১) ১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ অলকার মোড় বাদীর VIVO মোবাইল শো-রুম হ’তে সর্বমোট ৩৭,৪৩,৮০০/-(সাইত্রিশ লক্ষ তেতাল্লিশ হাজার আটশত) টাকা ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এ জমা দেয়ার উদ্দেশ্যে বেলা অনুমান ১২.৪৫ ঘটিকার বোয়ালিয়া মডেল থানাধীন অলকার মোড় The Raymond shop নামক শো-রুমের সামনে পাকা রাস্তার উপর পৌছালে মেহেদী হাসান ফাইসাল এর ডান কাঁধে থাকা ০১টি কালো কালারের ব্যাগ ( VIVO লেখা) যার মধ্যে ৩৩,০০,০০০/-(তেত্রিশ লক্ষ) টাকা ছিল, উক্ত ব্যাগটি মোটর সাইকেল আরোহীরা টান দিয়ে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। মোটর সাইকেল আরোহীরা শুধুমাত্র মেহেদী হাসান ফাইসাল এর কাঁধে থাকা ব্যাগ নিয়ে গেছে কিন্তু পাশের থাকা মোঃ সোহেল এর ব্যাগটি নেয়নি, যাতে ৪,৪৩,৮০০/-(চার লক্ষ তেতাল্লিশ হাজার আটশত) টাকা ছিল।Raymond শো-রুমের সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, মোটর সাইকেল আরোহী ০২ জন দুস্কৃতকারী কর্তৃক ভয়ভীতি, মারধর, বা চাকু, অস্ত্র প্রদর্শন করার বিষয়টি পরিলক্ষিত হয়নি।ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার ০১ মিনিট পরেই মেহেদী হাসান ফাইসাল, জাফর ইকবাল মাসুম এর নিকটে মোটর সাইকেল এর চাবি নিতে আসেন।তার মোটর সাইকেল নিয়ে গৌরহাঙ্গা পর্যন্ত টাকার ব্যাগ ও ছিনতাইকারী খোঁজার চেষ্টা করেন।

কিন্তু ভিডিও ফুটেজ দেখা যায়, ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার সময় কোন প্রকার প্রতিরোধ, চিৎকার-চেঁচামেচি করেন নি। আসামী মোঃ তাইজুল ইসলাম ডলার অত্র মামলার বাদী অঞ্জন কুমার রায় (৫২), পিতা-মৃত অরুন কুমার রায়, সাং-হোল্ডিং নং-১৮৯, বোয়ালিয়া পাড়া, এ/পি সাং-সুলতানাবাদ (ডাঃ দেবাশিষ এর বাড়ীর ভাড়াটিয়া), থানা-বোয়ালিয়া, মহানগর রাজশাহী এর VIVO মোবাইল শো-রুমের কর্মচারী ছিলেন।করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সে শো-রুমে কম আসা-যাওয়া করতো।উক্ত আসামী ১৮/০৬/২০২০ খ্রিঃ পূর্ব পরিকল্পিতভাবে গ্রেফতারকৃত আসামী ও মাথায় কালো হেলমেট ও পরনে রেইন কোর্ট পরিহিত পলাতক আসামী মোঃ আরিফুল ইসলাম ডলার (২৪), পিতা-মৃত হাসান আলী, সাং-হরিপুর, থানা-দামকুড়া, মহানগর রাজশাহীকে তার মোটর সাইকেল ড্রাইভ করতে দিয়ে সে মোটর সাইকেল এর পিছনে ছদ্মবেশে গায়ে রেইন কোর্ট ও মাথায় লাল হেলমেট পরে পিছন হ’তে মেহেদী হাসান ফাইসাল এর ডান কাঁধে থাকা ব্যাগটি টান দিয়ে নিয়ে যায়।এরপর তারা মোটর সাইকেলটি নিয়ে কাশিয়াডাঙ্গা থানাধীন বালিয়া সেনপুকুর গ্রামস্থ মোঃ আরিফুল ইসলাম ডলার এর বন্ধু মোঃ অহিদুল ইসলাম (২২), পিতা-মোঃ আঃ ওহাব এর শয়ন কক্ষের খাটের নিচে টাকার ব্যাগটি রেখে রুমটি তালাবদ্ধ করে চলে যান।

এরপর মোঃ তাইজুল ইসলাম ডলার তার পোশাক চেঞ্জ করে মোটর সাইকেল নিয়ে বাদীর অলকার মোড়স্থ VIVO মোবাইল শো-রুমের সামনে আসেন।মোঃ তাইজুল ইসলাম ডলার এর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কাশিয়াডাঙ্গা থানাধীন বালিয়া সেনপুকুর গ্রামস্থ মোঃ অহিদুল ইসলাম (২২) এর খাটের নিচ হ’তে ছিনিয়ে নেয়া উক্ত কালো কালারের ( VIVO লেখা) ব্যাগ সহ মোট ৩২,০০,০০০/-(বত্রিশ লক্ষ টাকা) উদ্ধার করে এসআই/মোঃ আঃ মতিন জব্দতালিকা প্রস্তুত পূর্বক বর্ণিত টাকা ও আলামত হেফাজতে গ্রহণ করেন। আসামীরা মামলার ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সম্পৃক্ত ছিল।জব্দকৃত টাকার মালিক অত্র মামলার বাদী অঞ্জন কুমার রায় (৫২) ও তার ব্যবসায়িক পার্টনার এসএম সালেহীন রিংকু (৪৫)। এ বিষয়ে তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত আছে।এভাবে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ গোয়েন্দা তথ্য ও তথ্য প্রযুক্তি বিশ্লেষণের মাধ্যমে সম্পূর্ণ ক্লু-লেস ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন, আসামীদের সনাক্তপূর্বক গ্রেফতার ও লুণ্ঠিত টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে।

IPCS News /রির্পোট।