বৃহস্পতিবার ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

করোনা আক্রান্ত আছে কিনা, জানিয়ে দেবে মোবাইল অ্যাপ!

আপডেটঃ ৪:০৫ অপরাহ্ণ | জুন ০৪, ২০২০

অনলাইন ডেস্ক

লকডাউনের পরিস্থিতিতে পেটের টানে হয়তো বাড়ির বাইরে বেরতে হচ্ছে, বাজারে যেতে হচ্ছে, হয়তো আপনার পাশেই দাঁড়িয়ে বাজার করছেন এক করোনা আক্রান্ত! আপনি তো জানেনই না, হয়তো ওই ব্যক্তিরও জানা নেই, পরীক্ষা করানো হয়নি বলে।এই অবস্থায় ভাইরাসের সংক্রমণ আপনার শরীরে আর আপনার থেকে আপনার পরিবারের কারও শরীরে ছড়িয়ে পড়তেই পারে! আর এ ভাবেই লকডাউনেও ছড়িয়ে পড়তে পারে করোনাভাইরাস।

তাই স্মার্টফোনকে কাজে লাগিয়ে নাগরিকদের সুরক্ষায় আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে কন্টাক্ট ট্রেসিং অ্যাপ চালু করতে যাচ্ছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ।

কন্টাক্ট ট্রেসিং অ্যাপ ডাউনলোড করার পর স্মার্টফোনের লোকেশন এবং ব্লুটুথ অন রেখে বাড়ির বাইরে বের হলে এটি এক-দুই মিটারের মধ্যে যারা থাকবে তাদের হিস্ট্রিগুলো আমাদের ডাটাবেইসে পাঠাবে।কেউ যদি আক্রান্তের কাছাকাছি চলে যায় তাহলে সে স্মার্টফোনে অ্যালার্ট পাবে।তার সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিরা যদি কয়েক দিন পরও করোনা পজিটিভ হয় তাহলেও স্মার্টফোন থেকে সতর্কবার্তা পাওয়া যাবে।সে ক্ষেত্রে ফোন করে প্রয়োজনীয় পরামর্শও দেওয়া হবে।

ইতিমধ্যেই প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে Apple, Google-এর মতো সংস্থাও অ্যাপ তৈরি করতে উদ্যোগী হয়েছে।ভারতেও লঞ্চ হয়েছে AarogyaSetu মোবাইল অ্যাপ।তাই করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই শুরু হয়েছে গিয়েছে মোবাইল অ্যাপ-নির্ভর ভাইরাস শনাক্তকরণের কাজ।

তবে বিজ্ঞান আর প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এই পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছেন ইজরায়েলের বিজ্ঞানীরা।অজান্তে অন্য কারও শরীর থেকে ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সে দেশ কাজে লাগাচ্ছে একটি স্মার্টফোন অ্যাপ।এই অ্যাপ যে কেউ তার মোবাইলে ইনস্টল করতে পারেন।

১৪ মার্চ ইজরায়েলের সরকার ‘ট্র্যাক ভাইরাস’ নামে একটি অ্যাপ সামনে আনে, যেটির সাহায্যে সংক্রমিত ব্যক্তিদের অবস্থান দেখা যাবে।অ্যাপটি ‘ইনস্টল’ করার সঙ্গে সঙ্গেই ফোন ব্যবহারকারীর গতিবিধির উপরে নজর রাখতে পারবে ইজরায়েল সরকার।১৭ মার্চ থেকে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে ইজরায়েলে।‘ট্র্যাক ভাইরাস’ অ্যাপের সাহায্যে এক দিনে ৪০০ জনকে কোয়রান্টিন করা হয়েছে সে দেশে।

IPCS News / রির্পোট।