বুধবার ১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

আগুনের দাবানলে অস্ট্রেলিয়া বনের পশুরা আসছে মানুষের অনুকুলে!

আপডেটঃ ২:৫৮ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৬, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ

সেপ্টেম্বর থেকে শুর হওয়া অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে প্রায় ৫০ কোটি প্রাণী মারা গেছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।আর এখন পযন্ত মৃতু্্য হয়েছে ১৮ জন মানুষের।দাবানলে জ্বলছে অস্ট্রেলিয়া।কোনোভাবেই এই প্রাকৃতিক দুর্যোগ সামলাতে পারছে না দেশটির সরকার।সবাই প্রার্থনা করছে যেন আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামে।দুই মাসের বেশি ধরে চলা ভয়াবহ দাবানলে প্রায় ৫০ কোটি বন্যপ্রাণী মারা গেছে।আর নিহত হয়েছেন প্রায় ৩০ জন মানুষ।দাবানল এখনো বেড়েই চলেছে।ইতিমধ্যেই দেশটির ৬ রাজ্যের ৪ টিই দাবানলের কবলে পড়েছে।

সবচেয়ে বিপদে আছে বনের বাসিন্দা পশুরা।চারদিক থেকে আগুন এসব প্রাণীদের এমনভাবে ঘিরে ধরছে যে, পালানোর সুযোগটাও পাচ্ছে না! অসংখ্য প্রাণী কোনোমতে পালিয়ে জনবসতিতে চলে এসেছে।অস্ট্রেলিয়ার মানুষজন এই দূর্গত প্রাণীদের আশ্রয় দিয়েছে।তাদের চিকিৎসা এবং খাবারের ব্যবস্থাও করে দিচ্ছে মানুষ।

সেই ভয়ার্ত পশুগুলো মানুষ দেখলেই এখন জড়িয়ে ধরছে! বোবা মুখে ভাষা ফোটে না, কিন্তু কাতর আর্তিতে চাইছে সাহায্য।দগ্ধ-অর্ধদগ্ধ প্রাণীগুলোর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্ব মিডিয়া।যেই দেখছে, তার চোখ বেয়ে নেমে আসছে জলের ধারা।নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যে ৩৬ লাখ হেক্টর জমি পুড়ে গেছে যা ইউরোপের দেশ বেলজিয়ামের থেকেও বড়।কুইন্সল্যান্ডে ২ লাখ ৫০ হাজার হেক্টর জমি পুড়ে গেছে।এছাড়া ভিক্টোরিয়া অঙ্গরাজ্যে ৮ লাখ ২০ হাজার হেক্টর বনাঞ্চল পুড়ে গেছে।এই ভয়াবহ দাবানল মোকাবেলায় সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার।তবুও থামছে না আগুনের ভয়াবহতা।

ইস্ট গিপসল্যান্ড আর ভিক্টোরিয়াতেই ৪৩টি বাড়ি ধ্বংস হয়েছে আর ১৭৬টি শেষ হয়ে গেছে নিউ সাউথ ওয়েলস।তবে অবস্থার সামান্য উন্নতি হয়েছে এবং ভিক্টোরিয়াতে বন্ধ করে দেয়া একটি সড়ক দু ঘণ্টার জন্য খুলেও দেয়া হয়েছিলো যাতে করে লোকজন সরে যেতে পারে।কিন্তু নতুন বছরের প্রথম প্রহরেই নিউ সাউথ ওয়েলসে অন্তত ১১২টি বাড়ি পুড়ে যেতে দেখা গেছে।ভিক্টোরিয়াতে দাবানল সতর্কতার সাথে একটি জরুরি অবস্থার সতর্কতাও ছিলো।পরে সেটিকে কমিয়ে ‘ওয়াচ অ্যান্ড অ্যাক্ট’ সতর্কতা দেয়া হয়।এর আগে গত বুধবার নিউ সাউথ ওয়েলসের ফায়ার সার্ভিস বিভাগ জানিয়েছিলো এ বছর আগুনে সেখানকার মোট ৯১৬টি বাড়ি ধবংস হয়েছে।এছাড়া ক্ষতি হয়েছে আরও অন্তত ৩৬৩টি বাড়ির।

এর মধ্যে এক কৃষকের নিজের খামারের গরুকে গুলি মারার হৃদয় বিদারক দৃশ্য দেখা গেছে। আগুনে পুড়ে মরার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে গরুগুলোকে গুলি করে মারা হয়।IPCS News /রির্পোট।