শনিবার ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

মদনে বউ শ্বাশুড়ি দ্বন্দে নিহত -১, আহত -৭

আপডেটঃ ৭:০৩ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২

নিউজ ডেস্কঃ

নেত্রকোনা:- নেত্রকোনার মদনে বউ শ্বাশুড়ি দ্বন্দে ছুরির আঘাতে ক্বারী শফিকুল ইসলাম (৬৫ ) নামে একজন খুন হয়েছে।এই ঘটনায় নারী ও শিশুসহ আরও ৭ জন আহত হয়েছেন।গত রাতে উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের রুদ্রশ্রী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।নিহত ক্বারী শফিকুল ইসলাম একই গ্রামের মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে।আহত ৭ জনকে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসলে ইব্রাহিম (৮০) মোবারক হোসেন (২৫) মামুন মিয়া (২২) মিনারা আক্তার (৫০) এর অবস্থা আশংকা জনক থাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।বাকি আহতরা জুনায়েদ (২৫) রিনা আক্তার (৩৮) কাদির (১৩) মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করা হয়েছে।স্থানীয় এলাকা বাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রৌদ্রশ্রী গ্রামের এলাল উদ্দিন এর ছেলে মোবারক হোসেন ফতেপুর মড়ল পাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নান (আবু মুন্সির) মেয়ে মুন্না আক্তারকে বিয়ে করেন।

গত রবিবার রাতে মুন্না আক্তার তাঁর শ্বাশুড়ি রিনা আক্তার এর সঙ্গে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে তর্ক বির্তক করেন।তখন রাগে মুন্না আক্তার বাবার বাড়িতে গিয়ে শ্বাশুড়ি সাথে ঝগড়ার কথা তাঁর পরিবারকে জানান, মেয়ের কথা শুনে মেয়ের বাবা সহ তার লোকজন ধারালো অস্ত্র-শস্র নিয়ে রাতেই মেয়ের জামাই মোবারক হোসেনের বাড়ি রুদ্রশ্রী গ্রামে হামলা চালায়।

এ সময় প্রতিবেশী শফিকুল ইসলাম হামলা কারীদের আটকাতে গেলে তাকে দেশীয় চুরি দিয়ে আঘাত করে।এতে সে গুরুতর আহত হলে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার থাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করে মদন থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফেরদৌস আলম এ প্রতিনিধিকে জানান, নিহত ক্বারী শফিকুল ইসলামের লাশ ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ঘটনা স্থল হতে একজন নারীকে আটক করেছে।এলাকাযর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

IPCS News : Dhaka : শহীদুল ইসলাম : নেত্রকোনা।