শনিবার ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনামঃ

কোনটি স্বাস্থ্যকর ? ফলের সালাদ নাকি আস্ত ফল।

আপডেটঃ ৫:১৫ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সবুজ শাকসবজি এবং ফল খাওয়া আমাদের দৈনন্দিন স্বাস্থ্যকর জীবনের একটি অপরিহার্য অংশ। প্রকৃতপক্ষে, অনেক পুষ্টিবিদ ৫:৭  অনুপাতে ফল এবং শাকসবজি খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। ফলে অনেকে মনে করেন, ফল ও সবজি একসঙ্গে সালাদ করে খেলে তা বেশি পুষ্টি সরবরাহ করে।

বর্ণিল খাবার গ্রহণের তত্ত্ব থেকেও আমরা মিশ্র ফলের সালাদকে স্বাস্থ্যকর মনে করি। এমন সালাদ শুধু লোভনীয় হয় তা নয়, এটি নানা পুষ্টিতেও সমৃদ্ধ।

কিন্তু সত্যিই কী এটি বেশি স্বাস্থ্যকর?

যখন আপনি বাটিতে নানা ফল কেটে একত্রে মেশাবেন, আপনার পাকস্থলি তা একসঙ্গেই গ্রহণ করছে অর্থাৎ একসঙ্গে সমস্ত পুষ্টির সমাবেশ ঘটছে। কিন্তু বিষয়টি আসলে ক্ষতিকর। কেননা, বিভিন্ন রকমের ফল একসঙ্গে উপভোগ করলে তাতে যে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি থাকে তা মোকাবেলার সামর্থ্য শরীরের থাকে না। এতে শরীরে এক ধরনের বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। 

তাছাড়া তাজা ফল একসঙ্গে কাটার পর দীর্ঘক্ষণ তা রাখাও যায় না।

পুষ্টিবিদরা বলেন, তাজা ফলের মিশ্রণ খাওয়াও ঠিক আছে। কিন্তু একসঙ্গে পুরো একটি ফল খাওয়া বেশি স্বাস্থ্যকর। তাছাড়া ফল কাটার পরপরই তা খেয়ে ফেলা উচিত। আপেল, নাশপাতি এবং বরই-এর মতো ফল খোসাসহ খাওয়া উচিত বলে উল্লেখ করেন তাঁরা।

ফলে অক্সিডেশন
ফলের পুষ্টির ক্ষতি করে এমন প্রাকৃতিক রাসায়নিক প্রক্রিয়ার নাম অক্সিডেশন। একটি আপেল কাটার পর এই প্রক্রিয়ায় তা বাদামি রং ধারণ করে। একটি ফল খোসা ছাড়ানো বা কাটার পরপরই প্রক্রিয়াটি শুরু হয়।

এটি ঘটার কারণ হলো ফলটি কাটার পর এর মধ্যে কোষের ঝিল্লি ভেঙে যায় এবং অক্সিজেন প্রবেশ করে। তাপ, অক্সিডেশন এবং পানি খনিজ ও ভিটামিনগুলোর তিনটি বড় শত্রু। এসব বিষয় বিবেচনা করেই ফল খাওয়া উচিত। 

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া