শনিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীর পদ্মায় সক্রিয় বালু-দস্যুরা

আপডেটঃ ৩:০০ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ১৫, ২০২১

নিউজ ডেস্কঃ

রাজশাহী প্রতিনিধি:- পদ্মার পানি নামার সাথে সাথে নগরীর ও পবার বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে বালু উত্তোলন শুরম্ন হয়েছে।এতে প্রতিদিন শহররৰা বাঁধের উপর দিয়ে বালু বোঝাই শতশত ট্রাক উঠানামার কারনে হুমকীর মুখে পড়েছে এই বাঁধ।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পদ্মার পানি নেমে যাবার সাথে সাথে সক্রিয় হয়ে উঠেছে বালুদস্যুরা।তারা ইতিমধ্যে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে পদ্মাপাড় থেকে বালু উত্তোলন শুরম্ন করেছেন।নগরীর পুর্বপ্রানেৱ শ্যামপুর জাহাজঘাট ও তালাইমারী এবং পশ্চিমে পবার খোলাবোনা পদ্মাপাড় থেকে প্রতিদিন শতশত ট্রাক বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।বালু উত্তোলনের সকল প্রস’তি সম্পন্ন করা হয়েছে হাড়-পুর থেকেও।যে কোন সময় এখান থেকেও বালু উত্তোলন শুরম্ন হবে।এই বালু নিয়ে যাওয়া হচ্ছে শহর রৰা বাঁধের উপর দিয়ে।ওই এলাকাগুলোর লোকজন বলেন, পদ্মাপাড় থেকে বালু উত্তোলনের ফলে পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে দেখা দিচ্ছে ব্যাপক ভাঙ্গন।

অন্যদিকে বাঁধের উপর দিয়ে বালু বোঝাই ট্রাক চলাচল করায় বিভিন্ন জায়গায় ফাটল দেখা দিয়ে শহররৰা বাঁধ ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।এই অবস্থা চলতে থাকলে আগামী বর্ষা মৌসুমে ওই এলাকাগুলোতে ভাঙ্গন ভয়াবহ আকার ধারন করবে।বালুদস্যুরা অত্যনৱ প্রভাবশালী হওয়ায় এলাকাবাসি তাদের বিরম্নদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পাননা।

বালুদস্যুদের অপতৎপরতা বন্ধে এলাকাবাসি প্রশাসনের হসৱৰেপ কামনা করেছেন।উলেস্নখ্য, ইতিপুর্বে এই এলাকাগুলোসহ আরো বেশকিছু পয়েন্ট থেকে বালু উত্তোলন করায় সে গুলোতে প্রশাসনের পৰ থেকে একাধিকবার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে বালু উত্তোলনের কাজে ব্যবহত সরঞ্জাম ধবংশসহ জেল-জরিমানা করা হয়।

এতে কিছুদিন বন্ধ থাকার পর বালুদস্যুরা আবার সক্রিয় হয়ে উঠে বালু উত্তোলনের কাজে।প্রশাসনের ভিতরে থাকা কিছু অসাধু ব্যক্তি তাদেরকে বালু উত্তোলনের কাজে সহযোগিতা করে বলে সুত্র জানায়।

IPCS News : Dhaka : আবুল কালাম আজাদ : রাজশাহী।