শনিবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

তেলের ট্যাংকারে হামলা ইরানকে দায়ী করেছিল : যুক্তরাষ্ট্র

আপডেটঃ ১২:১৪ অপরাহ্ণ | জুন ১৬, ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ভাষ্য অনুযায়ী ওমান উপসাগরে অঞ্চলে মোতায়েন তাদের নৌবহরের কাছে দুটি বিপদ সংকেত বা এসওএস বার্তা আসে দুটি তেলের ট্যাংকার থেকে।দুটি ট্যাংকারেই বিস্ফোরণ ঘটেছিল এবং এর একটিতে আগুন ধরে গিয়েছিল। ঘটনার পর পর সেখানে ইরানের নৌ টহল বোটগুলোর তৎপরতা দেখা যায়।ওমান উপসাগরে দুটি তেলের ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র ইরানকে দায়ী করলেও তা প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান। বৃহস্পতিবার কোকুয়া কারেজেস ও ফ্রন্ট আলটেয়ার নামের নৌযানদুটিতে বিস্ফোরণের পর আগুন ধরে গেলে ইরানি উদ্ধারকারী দল ট্যাংকার দুটির ৪৪ ক্রুকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়।ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভাদ জারিফ টুইট করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র বিন্দুমাত্র প্রমাণ ছাড়াই এই অভিযোগ তুলছে। তারা কূটনীতিকে বানচাল করতে ‘অন্তর্ঘাতমূলক’ তৎপরতা চালাচ্ছে।শুক্রবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেছে, তেহরানের বিরুদ্ধে আনা যুক্তরাষ্ট্রের এমন অভিযোগের কোন ভিত্তি নেই।-খবর বিবিসি ও এএফপির

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সাংবাদিকদের বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ধারণা ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান এসব হামলার জন্য দায়ী।তিনি বলেন, গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী এ হামলায় ইরানের জড়িত থাকার জোরালো প্রমাণ রয়েছে।তবে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্বাস মৌসাভী বলেন, হামলার ঘটনার পর যত দ্রুত সম্ভব ইরান জাহাজগুলোকে রক্ষায় এগিয়ে আসে।

IPCS News /রির্পোট